ডেটা যেখানে মানুষের কাছাকাছি

করোনা: ২য় ঢেউয়ে শীর্ষ ১০ জেলার ৬টিতে ৫০% মানুষ টিকা পাননি

বাংলাদেশে গত বছর করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে সংক্রমণের শীর্ষে থাকা ১০ জেলার ৬টির প্রতিটির অর্ধেক মানুষ এখনো এক ডোজ টিকাও পাননি।

চলতি মাসের ৬ তারিখ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের টিকার তথ্যে দেখা যায়, গতবছরের অগাস্ট পর্যন্ত শনাক্তে শীর্ষে থাকা জেলাগুলোর মধ্যে ঢাকা, গাজীপুর, খুলনা ও রাজশাহীর ৫০ শতাংশ অধিবাসী অন্তত এক ডোজ টিকা পেয়েছেন।

দ্বিতীয় ঢেউয়ে শনাক্তের শীর্ষে থাকা বাকি জেলাগুলোর প্রথম ডোজ টিকা প্রাপ্তির হার ৪০ শতাংশের আশপাশে। তবে শীর্ষে থাকা কোন জেলারই দ্বিতীয় ডোজ টিকা প্রাপ্তির হার ৪০ শতাংশ অতিক্রম করেনি।

টিকা প্রাপ্তির হারে শীর্ষ ১০ জেলা

জেলাওয়ারি টিকা প্রাপ্তির হারে শীর্ষ ১০ জেলার ডেটা পর্যালোচনা করে দেখা যায়, প্রথম ডোজে সবচেয়ে এগিয়ে শিল্পাঞ্চল গাজীপুর। সেখানে প্রথম ডোজ টিকা পেয়েছে প্রায় ৬৩% মানুষ।

জেলাভিত্তিক হার বিবেচনায় দ্বিতীয় ডোজ সম্পন্নে এগিয়ে জয়পুরহাট। এ জেলার ৪৬% মানুষ করোনার দুই ডোজ টিকা পেয়েছেন।

জনসংখ্যার দিক দিয়ে শীর্ষ ১০ জেলা

জনসংখ্যার দিক দিয়ে বাংলাদেশের শীর্ষ ১০ জেলার ডেটা পর্যালোচনা করে দেখা যায়, করোনাভাইরাসের টিকা সবচেয়ে বেশি পেয়েছে ঢাকার মানুষ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য মতে, ঢাকা জেলার জনসংখ্যা প্রায় ১ কোটি ৪২ লাখ ৩৫ হাজার। এ পর্যন্ত ঢাকার প্রায় ৭৬ লাখ ৮২ হাজার মানুষ (৫৪%) পেয়েছে করোনার প্রথম ডোজের টিকা।

জনসংখ্যা বিবেচনায় ঢাকার পর এগিয়ে আছে চট্টগ্রাম ও কুমিল্লা জেলা। চট্টগ্রামে প্রথম ডোজ টিকা পেয়েছে ৩৯ লাখ ৩১ হাজার (৪৪%), কুমিল্লায় পেয়েছে প্রায় ২৬ লাখ ৩১ হাজার (৪১%) মানুষ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডেটায় দেখা যায়, এখন পর্যন্ত দেশে প্রথম ডোজ টিকার আওতায় এসেছে ৭ কোটি ৬৪ লাখ মানুষ। দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছে প্রায় ৫ কোটি ৩৯ লাখ মানুষ।

দেশে করোনা মহামারিতে নারীদের তুলনায় পুরুষের শনাক্ত ও মৃত্যু বেশি হলেও টিকা গ্রহণের হার প্রায় একই। উভয় ডোজেই পুরুষের টিকা প্রাপ্তির হার ৫১ শতাংশ, নারীর ৪৯ শতাংশ।