ডেটা যেখানে মানুষের কাছাকাছি

দুর্যোগে পড়ালেখায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত সুনামগঞ্জের শিশুরা

দেশে প্রাকৃতিক দুর্যোগে অসুস্থতার কারণে বিদ্যালয়ে যাওয়া থেকে সবচেয়ে বেশি বঞ্চিত হয় সুনামগঞ্জের শিশুরা।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো প্রকাশিত বাংলাদেশ ডিজেস্টার-রিলেটেড স্ট্যাটিস্টিকস ২০২১ (বিডিআরএস) এর ডেটায় দেখা যায়, ছয় বছরে (২০১৫-২০২০) সুনামগঞ্জের প্রায় ৮৭ হাজার শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ে যেতে পারেনি। এই সংখ্যা জেলার ৭৭ শতাংশ।

অনুপস্থিতির সংখ্যায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে সিলেট। এ জেলায় ছয় বছরে দুর্যোগের পর বিভিন্ন রোগে ভুগে বিদ্যালয়ে যেতে পারেনি ৫৯ হাজার ৫০৫ জন শিক্ষার্থী।

হার বিবেচনায় অনুপস্থিতি বেশি মৌলভীবাজারে

অনুপস্থিতির হার বিবেচনায় সিলেট বিভাগের চার জেলার শীর্ষে মৌলভীবাজার। এই জেলায় দুর্যোগ-পরবর্তী অসুস্থতায় বিদ্যালয়ে যাওয়া থেকে বঞ্চিত হয়েছে ১৫ হাজার ৬৭৫ জন। শতকরা হিসাবে তা জেলার ৮৯ শতাংশ।

বিডিআরএস’র ডেটা বলছে, ২০১৫-২০২০ সালের মধ্যে সিলেট বিভাগে প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে অসুস্থ হয়ে বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত ছিল প্রায় ১ লাখ ৮২ হাজার শিক্ষার্থী। দুর্যোগে আক্রান্ত ৫-১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয় ৪৬ হাজার ২২৮ জন শিক্ষার্থী। এই বিভাগে দুর্যোগ পরবর্তী সময়ে অসুস্থ শিক্ষার্থীদের অনুপস্থিত হার ৮০ শতাংশ।

ডেটা বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, এই ৬ বছরে প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত হয় সিলেট বিভাগের সাড়ে ১০ লাখ পরিবার। যার মধ্যে শুধুমাত্র বন্যাতেই ক্ষতিগ্রস্ত হন ৬ লাখ পরিবার। এছাড়া বজ্রঝড়ের কবলে ক্ষতি সাধন হয় সিলেট বিভাগের ১ লাখ ৫৬ হাজার পরিবারের।

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৬ লাখ পরিবারের মধ্যে ২ লাখ ৮৮ হাজার সুনামগঞ্জের। এছাড়াও সিলেট জেলায় বন্যায় কবলিত হয় দেড় লাখেরও বেশী পরিবার।

প্রসঙ্গত, সিলেট-সুনামগঞ্জসহ দেশের কয়েকটি এলাকায় বন্যার কারণে স্থগিত করা হয় এ বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। স্থগিত হওয়া পরীক্ষা শুরু হবে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর।