ডেটা যেখানে মানুষের কাছাকাছি

ডেঙ্গু: ঢাকায় ঝুঁকিতে ছিল শিশুরা

গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ৬ অগাস্ট পর্যন্ত ঢাকা মহানগরীর ৯৫৮ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন।

সব মিলিয়ে চলতি বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নেয়া মানুষের সংখ্যা ৪,৩১৯। এদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৩,৩১২ জন। ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে সন্দেহ করা হচ্ছে ১০ জনের।

রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) ডেটায় দেখা যায়, ২০১৯ সালে জুলাই-সেপ্টেম্বরে ঢাকা মহানগরে ৬,৬১৯ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হন। ওই সময় সবচেয়ে বেশি সংখ্যায় ডেঙ্গু সংক্রমণ হয়েছিল মিরপুরে (১,১২৫)।

চলতি বছর আক্রান্তের এলাকা বা বয়সভিত্তিক হিসেব ডেটাফুল এখনো পায়নি।

তবে ঢাকা মহানগরে সর্বশেষ ডেঙ্গু প্রকোপের (২০১৯ সাল) ডেটা বিশ্লেষণে দেখা যাচ্ছে, আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি শিশুদের।

ঢাকায় ডেঙ্গু আক্রান্তের শীর্ষ ১০ এলাকায় ৫-১৪ বছর বয়সি শিশুরা সবচেয়ে বেশি সংখ্যায় আক্রান্ত হয়েছিল। পশ্চিম উত্তরায় এ হার ছিল সর্বোচ্চ ৩০%, সর্বনিম্ন শাহজাহানপুরে (২২%)।

মোহাম্মদপুর ও মিরপুরে ১৫ থেকে ২৪ বছর বয়সী মানুষ সবচে বেশি আক্রান্ত হয় (প্রায় ২৫%)। এ বয়সীয়া সবচে কম আক্রান্ত (১৬%) হয় পশ্চিম উত্তরায়।

বাংলাদেশে জুন থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বেশি ডেঙ্গু সংক্রমণ হয়ে থাকে। ২০১৯ সালে ঢাকায় জুলাই-সেপ্টেম্বরে ডেঙ্গু আক্রান্ত নারীর সংখ্যা ২,৯৫৭, পুরুষের সংখ্যা ৩,৬৬২।