ইনফোগ্রাফিক : তথ্যের সর্বোত্তম প্রকাশ

ইনফোগ্রাফিকে টেক্সটের আড়ালে তথ্য লুকিয়ে থাকে না। ফলে তথ্য জানার বা বোঝার জন্য পাঠককে ভাবতে হয় না।

.

ডেটা ব্যবহার করে একজন সাংবাদিক অসংখ্য কনটেন্ট তৈরি করতে পারেন। সেসব কনটেন্টকে মৌল দুটি ভাগে ভাগ করা যায় : (ক) স্ট্যাটিক কনটেন্ট, (খ) ইন্টারঅ্যাকটিভ কনটেন্ট। স্ট্যাটিক কনটেন্ট আবার দুই রকম: (ক) ইনফোগ্রাফিক, (খ) ডেটা রিপোর্ট।

ইনফোগ্রাফিক শব্দটি মূলত দুটি ইংরেজি শব্দের মিশ্রণ। Information-র Info ও Graphics মিলে তৈরি হয়েছে ইনফোগ্রাফিক শব্দটি। তথ্য বা ডেটার মনোগ্রাহী ভিজ্যুয়াল উপস্থাপনকে বলা হয় ইনফোগ্রাফিক। একটি ছবি এক হাজার শব্দের চেয়ে বেশি শক্তিশালী। এই কথাটি শোনেননি সাংবাদিকতায় যুক্ত এমন মানুষ পাওয়া কঠিন। কিন্তু ছবি কেন বেশি শক্তিশালী? মানুষ টেক্সটের চেয়ে ছবি বেশি দিন বেশি পরিমাণে মনে রাখতে পারে। নানা বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা-নিরীক্ষায় এই বিষয়টি প্রমাণ হয়েছে।

.

মানুষের ছবি বেশি দিন বেশি পরিমাণে মনে রাখতে পারার ক্ষমতাটিই কাজে লাগানো হয় ইনফোগ্রাফিকের মাধ্যমে। টেক্সটে লেখা তথ্যের চেয়ে ইনফোগ্রাফিক অর্থাৎ ছবি আকারে দেয়া তথ্য মানুষ বেশি মনে রাখতে পারে। একই তথ্য শুধু টেক্সটে না লিখে ইনফোগ্রাফিক আকারে উপস্থাপন করলে তা পাঠককে স্ট্রাইক করে। ইনফোগ্রাফিকে টেক্সটের আড়ালে তথ্য লুকিয়ে থাকে না। ফলে তথ্য জানার বা বোঝার জন্য পাঠককে ভাবতে হয় না। ইনফোগ্রাফিকের ধরনই এমন যে তথ্যটি সরাসরি পাঠকের চোখে পড়ে। পাশাপাশি মনোগ্রাহী উপস্থাপনের কারণে পাঠক তার দেখা ইনফোগ্রাফিক ইন্টারনেটে অন্যদের সাথে শেয়ার করতে উদ্বুদ্ধ হন।

.

ইনফোগ্রাফিক তৈরি হবে কী দিয়ে? সাধারণত বিভিন্ন বিষয়ে ডেটার ভিত্তিতে ইনফোগ্রাফিক তৈরি করা হয়। ডেটাভিত্তিক ইনফোগ্রাফিক তৈরির ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখা দরকার:

‣ মূল বক্তব্যে সবচেয়ে বড় আকারের ফন্ট ব্যবহার করুন

‣ সংখ্যার ফন্ট ছোট-বড় করে সংখ্যায় গুরুত্ব আরোপ করুন

‣ এক বিষয়-সংখ্যায় এক রঙের ফন্ট ব্যবহার করুন

‣ তথ্য ভারাক্রান্ত করবেন না

‣ রং ব্যবহার করে একাধিক অংশকে পরস্পর সংশ্লিষ্ট/আলাদা করুন

‣ প্রয়োজন হলে চার্ট যুক্ত করুন

‣ ইনফোগ্রাফিকের নকশা সরল করুন

৪.৪

ডেটা ভিত্তিক ইনফোগ্রাফিক তৈরির ক্ষেত্রে ফন্টের আকার-রং ইত্যাদি

বিষয় গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু শুধু টেক্সট ভিত্তিক তৈরি করতে চাইলে?

সেক্ষেত্রে নিচের বিষয়গুলো খেয়াল রাখা জরুরি:

‣ পটভূমিতে ভিন্ন রং ব্যবহার করে ভিন্ন ভিন্ন টেক্সটে গুরুত্ব আরোপ করুন

‣ মূল বিষয়/ব্যক্তির টেক্সটে আলাদা রং ব্যবহার করুন

‣ বিষয়/ব্যক্তির সাথে সম্পর্কযুক্ত অন্য বিষয়ে একই রং ব্যবহার করুন

‣ উপ-শিরোনাম হতে পারে এমন টেক্সটগুলির একই রঙে লিখুন

‣ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ টেক্সটে সবচেয়ে স্ট্রাইকিং রং ব্যবহার করুন

‣ তথ্য যতটা সম্ভব সংক্ষেপে উপস্থাপন করুন

‣ প্রয়োজনে ছবি ব্যবহার করুন

‣ ইনফোগ্রাফিকের নকশা সরল করুন